শেকড়ের সন্ধানে :

সাংবাদিকতাকে পুঁজি করে নিজেকে এতিম বলে অন্যায়ের জগৎ তৈরী করছে দিনাজপুর পার্বতীপুরের জাতীয় পত্রিকার প্রতিনিধি এবং একটি অনলাইন পোর্টালের সম্পাদক মোস্তাকিম সরকার ওরফে এতিম মোস্তাকিম। কে এই মোস্তাকিম সরকার। নিজেকে ক্ষমতাধর বলে আইনকে হাতের মুঠোয় নিয়ে একের পর এক অন্যায় কার্যক্রম চলিয়ে যাচ্ছে। নিমিশেই টাকা দিয়ে চোখ বন্ধ করে দিচ্ছে। প্যান্টের ডানে বামে দুটো করে পুলিশ কর্মকর্তাকে পুরে রাখতে পারে এমন হুংকার। ভয়ে কোন সাংবাদিক তাকে ঘাটে না। সকলে তার কাছে যেন জিম্মি। দেখবার কেউ নেই। সেই সুযোগে অন্যায় ভাবে রেলওয়ের ভুমি দখল, গাছ কেটে বিক্রি, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান দেখিয়ে চাকুরীর নামে নিয়োগ বানিজ্য, প্রতারণা, মেয়েদের যৌন হয়রানী, এনজিও’র নামে চড়া সুদ ব্যবসা, সাধারণ মানুষকে হয়রানী, মাস্তান পোষা, এমন কি সরকারী বেসরকারী অফিস এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রযোজনীয় কাগজ জালিয়াতি। সেই সাথে ভোটার আইডি কার্ড, সার্টিফিকেট জালসহ বর্তমানে এমন কোন কাজ নেই যে সে এবং তার কথিত ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও এনজিও’র লোকবলের দ্বারা করছে না। সকলের জানে তার অদৃশ্যশক্তির ইশারায় অপরাধমূলক কাজ করেও ছাড় পেয়ে যাচ্ছে। কে সে, কারা তাকে মদদ দাতা। তাদের পরিচয় বা কি ?

এ নিয়ে এমকে টেলিভিশনের শেকড়ে সন্ধানের টিম সরজমিনে ঘুরে ৩ পর্বের প্রতিবেদন সাজিয়েছে। আজকের ১ম পর্বে থাকছে রেলওয়ে সম্পত্তিতে অনাধিকার প্রবেশ করে দুটি জীবিত গাছ কাটার দ্বায়ে রেলওয়ে থানায় মামলা দায়ের। প্রশাসনিক কর্মকর্তা ভীত।

পার্বতীপুরের সাহেবপাড়ায় ১৮ নভেম্বর বিকেল আনুমানিক সাড়ে ৩টার দিকে মোস্তাকিম সরকার বেআইনি ভাবে রেলওয়ে সম্পত্তি দখল করা, কথিত আলোর পথে প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ের ভিতরে তার সাঙ্গপাঙ্গ নিয়ে ১টি জীবিত কড়াই গাছ ও ১টি জামগাছ জোর পূর্বক কেটে। এতে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ গাছগুলো কাটার সময় বাধা দিলে তা উপেক্ষা করে গাছ কাটাসহ চুরি করে। যা রেলওয়ের ক্ষতি সাধন হয়। পরবতীতে ও.ড রফিকুল হক বাদি হয়ে মোস্তাকিম সরকারের বিরুদ্ধে গেল ১৮ নভেম্বর’২০১৭ তারিখে ১৪৩/৪৪৮/৪২৭/৩৭৯ ধারায় রেলওয়ে থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা নং ১১।

মামলা দায়েরের পর পার্বতীপুর রেলওয়ে থানার পুলিশ পরিদর্শকের নেতৃত্বে পুলিশের ৪ সদস্য বিশিষ্ট টিমের ঝটিকা অভিযানে গুলপাড়ার স্থানীয় এক স’মিল থেকে কাটা গাছের অংশগুলো উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। এদিকে আসামীর ব্যপারে রেলওয়ে থানার অফিসার ইনচাজ মীর মনিরুল ইসলাম জানান……. …….

এদিকে আসামী মোস্তাকিম সরকার এখন নিজেকে রক্ষার জন্য অদৃশ্যশক্তির ছায়াতলে অবস্থান নিয়েছে। অন্যদিকে টাকা দিয়ে প্রসাশনের মুখ বন্ধের পায়তারা করছে। কারা বা কে সেই অদৃশ্যশক্তির ধারক। এত টাকা সে পাচ্ছে কোথা থেকে। এসব প্রতিবেদন নিয়ে আবার ফিরছি ২য় পর্বে। সে পর্যন্ত নিজেকে নিরাপদে রাখুন, সুস্থ থাকুন। আল্লাহ্ হাফেজ।

(ভিডিওতে বিস্তারিত দেখুন, লাইক/শেয়ার এবং সাবস্ক্রাইব করুন)

mktelevision.net/শেকড়ের সন্ধানে (ক্রাইম রিপোর্ট)

Leave a Reply

Your email address will not be published.

*